বিড়লা অ্যাকাডেমিতে আয়োজিত হল Bangla Band Spectrum-এর সঙ্গীতসন্ধ্যা

0
485

Arnab

গতকাল, ২৭শে জুলাই, বাংলা ব্যান্ড স্পেকট্রাম কলকাতার সঙ্গীতপ্রেমীদের উপহার দিল একটি সুরমাধুর্যে পরিপূর্ণ সন্ধ্যা। বিড়লা অ্যাকাডেমিতে সন্ধ্যা ৬টা থেকে অনুষ্ঠিত হল এই ব্যান্ডের তরফ থেকে এক উচ্চমানের সঙ্গীতানুষ্ঠান। অনেক আগ্রহী শ্রোতার জমায়েত ঘটেছিল এই অনুষ্ঠানে, এবং একথা নিঃসন্দেহে বলা যেতে পারে যে ‘স্পেকট্রাম’-এর শিল্পীদের সঙ্গীতদক্ষতা সবাইকে এক অনাবিল আনন্দে ভরিয়ে দিতে সম্পূর্ণরুপে সক্ষম হয়েছিল।

বিড়লা অ্যাকাডেমির এই অনুষ্ঠানটিতে অংশগ্রহণ করেন ‘স্পেকট্রাম’ ব্যান্ডের সকল সদস্যবৃন্দ। বিভিন্ন ধরণের যন্ত্রসঙ্গীত পরিবেশন করা হয় এই সঙ্গীতসন্ধ্যায়। সরোদবাদক অর্ণব ভট্টাচার্য্য সমগ্র দর্শককে সম্মোহিত করে তোলেন নিজের গায়কি ও সুরের জাদুতে। গিটারে তাঁর যোগ্য সঙ্গত দেন রাজদীপ কর্মকার। ড্রাম ও কাজনের দায়িত্বে ছিলেন অনিন্দ্য হাজরা। অত্যন্ত সুন্দরভাবে তারাবুকা বাজান তমাল মন্ডল। বেস্ গিটারে ছিলেন বিট্টু রাম।

Spectrum

সন্ধ্যাটি যেন এক নতুন, অসাধারণ সঙ্গীতশৈলীর সাথে পরিচিত করায় শ্রোতাদের – নিয়ে যায় তাদের সঙ্গীতের এক তুরীয় মার্গে। অর্ণব ভট্টাচার্য্যের প্রাথমিক সুরের ঝংকার (Revival)-এ ছিল এক সুন্দর, অনুপম চমক। নিজের চোখ কালো কাপড়ে বেঁধে, চক্ষুন্দ্রিয়ের সাহায্য ছাড়াই, কেবল সঙ্গীতানুভূতির উপর ভরসা করে তিনি নিজের সরোদে তোলেন বিস্ময়কর সুর। সেই সুরে ছিল শাস্ত্রীয় ও আধুনিক সঙ্গীতের এক শ্রুতিমধুর মিশ্রণ। সরোদ ও গিটারের মেলবন্ধনটাও হয়েছিল ভারী চমৎকার। অন্যান্য যন্ত্রবাদকরাও নিজেদের চোখ বেঁধে বাজান এই সময়। চাক্ষুষ ক্ষমতা ব্যবহার না করেও যে এত সুন্দর সঙ্গীত পরিবেশন করা যায় সেটা সত্যিই ছিল ভাবনার অতীত। প্রসঙ্গত:, এই অনুষ্ঠানেই বিশ্বে প্রথমবার সঙ্গীত বিশারদরা এরকম চোখ বেঁধে মন্চে যন্ত্রসঙ্গীত পরিবেশন করলেন।

অনুষ্ঠানে স্পেকট্রামের দ্বিতীয় লয় ছিল গানস অ্যান্ড রোজেস্-এর ‘সুইট চাইল্ড ও’ মাইন’ গানটি থেকে অনুপ্রাণিত। গানটির অন্তর্নিহিত মাধুর্য এবং অর্ণব ভট্টাচার্য্যের শিক্ষিত সরোদ বাজানোর আঙ্গিক অনুষ্ঠানটিকে করে তুলেছিল বিশ্বমানের। প্রায় দেড় ঘন্টা সময় যে সুরের মায়ার মধ্যে দিয়ে কিভাবে কেটে গেল, তা যেন বোঝাই গেল না। সঙ্গীতের জাদু বোধহয় একেই বলে। স্পেকট্রামের এই প্রচেষ্টাটি ছিল সত্যিই প্রশংসনীয়।

স্পেকট্রাম হল এমন একটি বাংলা ব্যান্ড যাদের সদাসর্বদা লক্ষ্য বিভিন্ন ঘরানার সঙ্গীতের সুন্দর মিশ্রণ শ্রোতাদের কাছে তুলে ধরার। প্রাচ্য ও পাশ্চাত্য সঙ্গীত – এই দুইয়ের সমন্বয়েই সৃষ্টি হয় স্পেকট্রামের সমস্ত সঙ্গীতরচনা। শুক্রবারের অনুষ্ঠানটির গুণগত মান বিচার করে বিশ্বাসের সাথে বলা যেতেই পারে যে অর্ণব ভট্টাচার্য্য ও তাঁর ব্যান্ড স্পেকট্রাম সত্যিই সাফল্যের শিখরে ওঠার ক্ষমতা রাখে।

 

Video

http://www.youtube.com/watch?feature=player_embedded&v=QOTuPK8XVhs

LEAVE A REPLY

Please enter your name here
Please enter your comment!