Movie Review: Rupkatha Noy; Soumitra Chatterjee steals the show; Movie meant for the masses and classes alike

1
222
rupkatha noy review

Movie Review Rupkatha Noy

Atanu Ghosh-এর ছবি দেখতে বসা মনেই মনের গভীরতম গোপন কোনে উঁকি দেওয়া কিম্বা অতল সমুদ্রে ডুব সাঁতার দেওয়া। অতনুদার গল্পে যে সব চরিত্র রা ঘুরে ফিরে আসে, কথা বলে, হাসে, কাঁদে তাদের অনেক কেই যেন আমরা রোজকার জীবনে দেখে থাকি। অতনুদার প্রথম ছবি “অংশুমানের ছবি” আমার খুব প্রিয় বাংলা সিনেমা। তারপর মুক্তি পেল ‘তখন ২৩’, যে ছবি দেখতে দেখতে আমাদের অনেকেরই নিজেদের কৈশোরের নানান স্মৃতি মনে পড়ে গেছিলো। ‘রূপকথা নয়” অতনুদার তৃতীয় মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি। এই ছবি ঘিরে বাঙালি দর্শকদের আগ্রহ ছিল ষোলোআনা কারন বেশ কয়েক বছর পরে এই ছবিতেই আবার মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করলেন Soumitra Chattopadhyay।

Kolkata Bengali actress

অতনুদার ছবি মানেই নানান বয়সের চরিত্রদের মেলা, এই ছবিতেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। গল্পের হাত ধরে একে একে এসেছে সোহিনী সরকার, গৌরব চক্রবর্তী, কৌশিক সেন, রাহুল বন্দ্যোপাধ্যায়, রাধিকা আপ্তে। এরা ছাড়াও এই ছবিতে উচ্চমানের অভিনয়ের নিদর্শন স্থাপন করেছেন ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায় (Bhaskar Banerjee), সোমা চক্রবর্তী (Soma Chakraborty), অনিন্দ্য পুলক বন্দ্যোপাধ্যায় (Anindya Pulak Banerjee), রজত গঙ্গোপাধ্যায় (Rajat Gangopadhyay), মিঠু চক্রবর্তী (Mithu Chakraborty), নীনা চক্রবর্তী (Neena Chakraborty), অরিন্দম শীল (Arindam Shil), দেবপ্রতীম দাশগুপ্ত (Debpratim Dasgupta) প্রমুখ।

tollywood bengali actress Sayani

এই গল্পে Soumitra Chattejee অভিনয় করেছেন এমন এক চরিত্রে, যাকে বলা চলে “স্বপ্নের ফেরিওয়ালা”,এই চরিত্রের নাম ‘ শিশির ’। অবসর জীবনে তেমন কোন কাজ নেই তাই শিশিরবাবু প্রত্যেকদিন বিকেলে এসে বসেন এক পার্কে। সেই পার্কেই শিশিরবাবুর সঙ্গে একে একে দেখা হয়ে যায় এই গল্পের বিভিন্ন চরিত্রদের। এদের কেউ (Kaushik Sen) ছেলেদের স্কুলে অংক শেখান। কাউকে (Sohini Sarkar) প্রায় একরকম জোর করে বিয়ে দিয়ে দেওয়া হয়েছে বাড়ি থেকে। কেউ (Rahul Banerjee) এখনো আদ্দিকালের typist দের মতন রাস্তার ফুটপাথে Remington Type Machine খুলে বসেন, যদি কপালজোরে কোন খদ্দের জুটে যায়। কারো (Radhika Apte) বা জীবনের একমাত্র উদ্দেশ্য স্বামীর খুনের “প্রতিশোধ” স্পৃহা চরিতার্থ করা। এমনসব বিচ্ছিন্ন চরিত্রদের মধ্যে একমাত্র পারস্পরিক যোগসূত্র হলেন অবসরপ্রাপ্ত বৃদ্ধ শিশিরবাবু। এরা নিজেদের সমস্যার সমাধান খুঁজতে শিশিরাবুর কাছে আসে, তাঁকে নিজেদের মনের কথা খুলে বলতে। অশীতিপর শিশিরবাবু যেন এই মানসিক যন্ত্রণাক্লিষ্ট মানুষগুলোর কাছে তাদের “স্বপ্নের ফেরিওয়ালা”।

Bengali movie review

শিশিরবাবুর চরিত্রে অবিস্মরণীয় অভিনয়ের সাক্ষর রেখেছেন Soumitra Chattopadhyay। বাকি অভিনেতা/অভিনেত্রীদের-ও শুধু যথাযথ বললে কম বলা হয়, প্রত্যেকেই নিজেদের ছাপিয়ে গিয়ে অভিনয় করেছেন এবং নিজেদের চরিত্রের সঙ্গে একাত্মবোধ করেছেন নাহলে এই ছবি সাধারন মধ্যবিত্ত শ্রেণীর দর্শকদের মনে দাগ কাটতে অক্ষম হতো। ছোট একটি খল-চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় করেছেন ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়। এমন চরিত্রে আমি ভাস্কর দাকে আগে কোনদিন অভিনয় করতে দেখিনি। ভাস্করদার স্ত্রীর চরিত্রে সোমা চক্রবর্তী-ও খুব ভালো। সোহিনীর অভিনয় খুব মিষ্টি আর গৌরব বেশ মার্জিত, ভদ্র, রোমান্টিক। রাধিকা আপ্তে নিজের চরিত্রে বেশ ভালো, যিনি রাধিকার কণ্ঠদান করেছেন, তিনিও বেশ ভালো কাজ করেছেন।

গল্পটা নিয়ে আমি বেশি কথা বলবনা কারন আমি চাই দর্শকরা সপরিবারে টিকিট কেটে প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে ‘রূপকথা নয়” দেখে আসুন এবং সেই অন্ধকার প্রেক্ষাগৃহে বাকি সবার সঙ্গে বসে গল্পটা উপভোগ করুন। ভালো বাংলা ছবির শুধু পুরস্কার নয় ব্যবসায়িক সাফল্য পাওয়াটা-ও অত্যন্ত প্রয়োজন।

beautiful tollywood actress riddhima

অভিনেতা/অভিনেত্রী-রা তাদের কাজ নিয়ে যথেষ্ট উত্তেজিত তথা আশাবাদী। কৌশিক সেন বললেন “এমন চরিত্রে আমি আগে কখনো অভিনয় করিনি। অতনুর সঙ্গে আমি আগে কাজ করেছি টেলিভিশনের পর্দায়। বড় পর্দায় এই প্রথম অতনুর সঙ্গে কাজ করে আমি খুব খুশি। এই ছবিতে আমি একজন অংকের শিক্ষক, যার সমগ্র জীবনটাই Maths আর Calculas-কে আবর্ত করে ঘোরাফেরা করছে। জীবনের একঘেয়েমিতে সেই মানুষটা bore হয়ে গেছে। এখন সে রোমাঞ্চ চায়।“ Soumitra Chatterjee বললেন “এমন বিচিত্র চরিত্র আমি গত ২০ বছরে পাইনি। আমার অভিনয় করতে খুব ভাল লেগেছে।“ গৌরব এবং সোহিনী-ও যথেষ্ট উত্তেজিত অতনু ঘোষের সঙ্গে কাজ করে। তাদের কাছে Director Atanu Ghosh একজন এমন শিক্ষকের মতন, যিনি একাধারে স্নেহশীল অভিভাবক এবং একজন Purely Perfectionist Filmmaker। প্রত্যেক অভিনেতাকে উনি একটা Space দেন কিন্তু শেষ পর্যন্ত Director রূপে নিজের কাজটা করিয়ে নেন। সঙ্গীত পরিচালক জয় সরকার (Joy Sarkar) দুর্দান্ত কাজ করেছেন, তার পরিচালনায় শিলাজিৎ (Silajit Majumader), অন্বেশা (Anwesha Dutta Gupta) খুব ভাল গান গেয়েছেন।

এক কথায় “রূপকথা নয়” -কে এই সময়ের একটি ব্যতিক্রমী বাংলা ছবি বলা যায়।

 

 

Photographs By: Amitav Sarkar

Movie Review by:
Sanjib BanerjiSanjeeb Banerji takes a keen interest in both Old and Contemporary/modern Bengali literature and cinema and have written several short stories for Bengali Little magazines. He also runs a little magazine in Bangla, named – Haat Nispish, which has completed its 6th consecutive year in the last Kolkata International Book Fair. Being the eldest grandson of Late Sukumar Bandopadhaya, who was the owner of HNC Productions and an eminent film producer cum distributor of his time (made platinum blockbusters with Uttam Kumar, like “Prithibi Aamarey Chaaye”, “Indrani” and several others), Sanjib always nurtured an inherent aspiration of making it big and worthy in the reel arena. He has already written few screenplays for ETV BANGLA.

 

Enhanced by Zemanta

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your name here
Please enter your comment!