New Bengali Movie Manihara Preview : Sohini Sarkar Ready to Take on a New Avatar

0
199
new bengali movie manihara

new bengali movie manihara

Myth নাকি মিথ্যাচারণ?

উইকেন্ড-এর ছুটি কাটিয়ে ফিরছিলেন রুদ্রজিৎ রায়। রাতের অন্ধকারের বুক চিরে ছুটে আসছিল অবসরপ্রাপ্ত সি বি আই আধিকারিকের গাড়ি।  হঠাৎ কোন অজানা কারনে গাড়ি বিকল। হাইওয়ে ছেড়ে রাত কাটানোর আস্তানা হিসেবে কিছু দূরেই একটি চায়ের দোকানকে বেছে নিলেন রুদ্রবাবু, বর্তমানে যিনি একজন প্রাইভেট ডিটেক্টিভ। এখানেই তার সঙ্গে পরিচয় হল চিত্রশিল্পী মধুসূদন ঘোষের, যিনি শ্মশানে এসেছেন শিল্পসৃষ্টির অনুপ্রেরনা খুঁজতে। সময় কাটানোর তাগিদে দুজনেই একটা করে গল্প শোনাতে শুরু করলেন একে অপরকে। রাতের অন্ধকার নিঃশব্দ, নিকটবর্তী শ্মশানে শোকাতুর কোলাহল আর ঝিঁঝিঁ পোকার ডাককে ছারিয়ে ঘনীভূত হয়ে উঠল রহস্য। কিন্ত অদ্ভুতভাবে কিছুদূর এগিয়েই খাঁজে খাঁজে মিলে যেতে লাগল দুটো গল্পের গতিপথ! দর্শক শিহরিত হয়ে অনুভব করলেন এই দুই সদ্যপরিচিত মানুষ আসলে পরস্পরকে কি একটাই গল্প বলছেন, খালি মুদ্রার এপিঠ আর ওপিঠ।

Constructed by Tagore, Re constructed by Ray, De constructed by 69 Creative entertainment…

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর (Rabindranath Tagore) এবং সত্যজিৎ রায় (Satyajit Ray), বাঙ্গালির সর্বশ্রেষ্ঠ দুই আইকনের নাম জড়িয়ে রয়েছে যে লেখার সঙ্গে সেটাকে নিয়ে কাঁটাছেঁড়া করাটা দুঃসাহস অবশ্যই। তবে স্পর্ধা ছাড়া কে কবে মহান হয়েছে? তাই খানিকটা অ্যাডভেঞ্চার-এর ঢং-এই  ছবি বানাতে নামল চার তরুন, যারা কেউই এই ইন্ডাস্ট্রিতে পরিচিত নয়, ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গেও পরিচিত নয়। উদ্দেশ্য কবিগুরুর ছোট গল্পকে ২০১৩ সালের নিরীক্ষে ভাঙচুর করে একটা সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার বানানো।

পাথেয় বলতে একটা হাতে লেখা স্ক্রিপ্ট, প্রচুর রোমান্টিকতা আর একটা বিশ্বাস ‘আমরা পারি, আমরাই পারি’। তবে স্বপ্নের বেলুন চুপসে যেতে দেরী হত না যদি না তাদের সঙ্গে ঠিক সময়ে মুলাকাত হয়ে যেত এক টেকনিক্যাল জিনিয়াসের। কলকাতা, মুম্বাই, বাংলাদেশ মিলে যে উনিশ বছর কাটিয়ে ফেলছিল বিনোদনের কারিগর হিসেবে। তুফানি দরিয়ায় অর্ঘদীপ, জয়দীপ, সুগ্রিব আর মনসিজের ভাসানো জাহাজের হাল ধরল পোড় খাওয়া নাবিক শুভব্রত। বাকিটা … উহ মোটেও ব্যক্তিগত নয়। বাকিটার সাক্ষী থাকবেন আপনিও। কয়েকমাসের মধ্যেই। সাক্ষী থাকবেন ২৪টা করে রোমাঞ্চকর ফ্রেমের, সাক্ষী থাকবেন আনকোরা Cinema প্রেমের।

মণিহারা দ্য মুভি…

new bengali movie manihara

এ ছবির USP এক নতুন চিরঞ্জিত। কারোর সঙ্গে তুলনা না টেনেই বলা যায় এ ছবিতে রুদ্রজিতের চরিত্রে দর্শক আবিষ্কার করবেন এক নতুন দীপকদা কে। মনিদীপার ভূমিকায় সোহিনী সরকারের (Sohini Sarkar) অভিনয় আপনাকে প্রেমে পড়তে বাধ্য করবে। একইভাবে আপনার মন জিতে নেবেন সুজন নীল মুখার্জি (Neel Mukherjee), বিপ্লব চ্যাটার্জি (Biplab Chatterjee),  বিশ্বনাথ বসু (Biswanath Basu), মানসী সিনহা (Manashi Sinha), দেবরঞ্জন নাগ (Debranjan Nag) বা রি (Rii)। সদ্যপ্রয়াত কুনাল পাধিকেও (Kunal Padhy) দেখা যাবে একটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে।

সিনেমা produce করার চেনা ছক ভেঙ্গে এই ছবিতে অভিনয় করবার চ্যালেঞ্জ নিয়েছে 69CE-এর owner অর্ঘদীপ (Argha Deep)। সখ নয়, ঐ যে বললাম স্পর্ধা, নিজেদের তৈরি চরিত্রকে নিজেরাই পর্দায় ফুটিয়ে তোলার স্পর্ধা। তার গলায় এই প্রচলিত একটি লোকগানকে নতুন আঙ্গিকে শোনা যাবে এই ছবিতে।

new bengali movie manihara

গল্প ফাঁদবার পাশাপাশি পরিচালক শুভব্রতর সহকারী হিসেবে কাজ করেছে জয়দীপ (Joydip Banerjee) আর সুগ্রিব। এই ছবির চিত্রনাট্য আর গানও লিখেছে জয়দীপ। আর চারজনের হাউসের তিনজনই শিল্পী ফলে অর্থনৈতিক ঝক্কি ঝামেলার পুরোটাই বহন করেছে মনসিজ। শুধু পরিচালনা নয় শুভব্রত যথার্থভাবেই এ ছবির পথপ্রদর্শক। তবে ব্যাবসায়িক দিকটায় তাকে যোগ্য সঙ্গত করেছেন কৌশিক ভৌমিক, যিনি এ ছবির কার্যনির্বাহী প্রযোজক। চিত্রগ্রহনে রোজ আলম, সম্পাদনায় অলক ধারা, শিল্পনির্দেশনায় আর একবার কামাল দেখিয়েছে কৌশিক-বারিকের যুগলবন্দী। সাউন্ড ডিজাইনার হিসেবে রয়েছেন গৌতম নাগ, শব্দযন্ত্রী  তীর্থঙ্কর। এই ছবির গ্রাফিক্স করেছে 4th Dimension এবং DI Colorist অরিন্দম দে। ছবির ২৮ দিনের শুটিং নিপুন হাতে সামাল দিয়েছেন প্রোডাকশন ম্যানেজার শৌভিক দাস এবং ছবির মেকিং ক্যামেরাবন্দি করেছে বাংলা ছবির উঠতি হার্টথ্রব Aryann

শেষ হয়েও হইলো না শেষ…

এ ছবির মুল আকর্ষণ এর গল্প। তাই এই নিয়ে আলোচনায় না গিয়ে, জোর দিয়ে বলা যায় যে, একবার যদি হলে ঢুকে ছবিটা দেখেন, কথা দিচ্ছি ক্লাইম্যাক্সটা আপনাকে ভাবাবে, তারা করে ফিরবে। আর সেই কারনেই আপনি ফিরে আসবেন দ্বিতীয়বার, দেখবেন খুঁজে পাচ্ছেন অনেক নতুন মোড়। পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে অনেক আবছা স্তর। আসবেন দেখা হবে।

 

 

Joydip Banerjee

Joydip Banerjee is a writer who is a member of 69 CE team. He has worked as Screenwriter, lyricist and director’s assistant in the new Bengali movie Manihara. He already has 3 more projects in the pipeline with other production houses. Previously engaged with politics, journalism and banking.. films are his 1st priority now.

 

 

 

 

 

Enhanced by Zemanta

LEAVE A REPLY

Please enter your name here
Please enter your comment!