Tag: Bappaditya Bandopadhyay

Interview: Debut Actor Ishaan Mazumder on His Working Experience in The Bengali Film Postmaster (Sholoana Bangaliana Exclusive)

Ishaan-Mazumder-interview

Ishaan Mazumder who is also a trained Rabindrasangeet Singer will be making his debut with the upcoming Bengali film Postmaster. Sholoana Bangaliana correspondent caught up with the talented actor in a candid conversation. Read on…

Priyanka Dutta, Sholoana Bangaliana- You are making your debut with Postmaster. How has been the experience?

Ishaan Mazumder- The experience for me was really awesome.  I gave my best and had a strong feeling that I would get selected from the audition for the lead character. And it happened as I had hoped for. The entire journey of Postmaster was a great experience and a great learning process for me from the audition, to the workshop till the completion of the shoot.

Ishaan-Mazumder-Postmaster

I assume you have read the original story by Tagore. So how do you think the audience will react to the changes done in the story?

Ishaan Mazumder- Yeah of course! I have read the story just like every Bengali. I am not an exception.Tagore, Roy will remain immortal always. See, the nucleus is the story of Tagore but the way it has been portrayed will bring an inquisitiveness to see the movie. Many adaptations from Tagore, Shakespeare have been made and have been successful in the past, like Charulata or Manihara in Bengali. Dev D and Omkara are the other examples. Content always sells and people will go to the theatre to watch a simple story which they can relate to and of course audience loves to compare and discuss on topics they are aware of .They will find a difference in the story line and will react “Oh this is the way it has been depicted but the Tagore one was a little different , etc etc!”

What made you say yes to this role?

Ishaan Mazumder- I went through the script and narration and loved it! And since it’s the “Postmaster”it had to be a “YES”! It has been dream role for me and as a newcomer I have faced a lot of challenges which I had to overcome. I love to accept challenges!

How was Srijon as the director?

Ishaan Mazumder- Srijon is a very hardworking, extremely talented director and an awesome story teller.

He has been working on this project from a long time, in all its areas; story, script, direction, and music. As a debutant director, he has done a marvelous job. He is very good in the technical aspects of film making.

Ishaan-Mazumder-interview

How was Pujarini as your co-star?

Ishaan Mazumder- As per experience in this industry, she is senior to me .Pujarini is one of the upcoming talented actors in Tollywood .She is a great co-star. She understands what to deliver and how to. A co actor helps to enhance your acting abilities to the fullest. We both supported each other to deliver the best in the film.

How much fun did you have during the shooting of the film? Any memorable experience that you will like to share with us!!

Ishaan Mazumder- We shot at Plassey and it was a home away from home. We all stayed together in a same building block. It was like a big fun loving family. Post shoot, the entire crew used to get together, discuss about the shoot, sing, dance and entertain ourselves. Our most memorable event was we found Bodhisattva da and Kalyan da coming out of their shell and singing for us!! I had always seen them only on screen but this experience was unforgettable!

You are a trained Rabindrasangeet singer. When did the acting bug bit you?

Ishaan Mazumder– I learnt music from a very small age, classical as well as Rabindrasangeet. I have done multiple playbacks for Kannada movies down south. I had represented South zone in Zee TV’s SaReGaMa and Channel [V[‘s Super Singer . I always used to admire Farhan Akhtar who had been a singer as well as an actor. Since childhood I have been in this environment and the acting bug bit me at my own house itself! In fact my uncle was with Shambhu Mitra and he was a famous theatre artist in his own right. My grandpa had acted in a Bengali movie .His close friend was Bhanu Bandhopadhay and they used to visit our parental house. My grandfather’s closest friend was the producer of “Komal Gandhar”. My maternal side had a production house “ Mili Productions” which has produced many Bengali cult movies like “ Biraj bou , Shomantoral , Kalhamarahai  [Hindi] , Protibad and many more . So basically joining films was natural for me.

Since films have already been made on Postmaster before, have you watched those films?

Ishaan Mazumder- Yes I did ;almost all of them , I am a movie buff .

How did you prepare yourself for the role?

Ishaan Mazumder- There are two kinds of preparation I take once a project is signed. Firstly, my physical appearance to suit the role that includes diet and exercise. Secondly, I prepare myself mentally for the character I would play. Here the character I played is of Nanda, for which I had to put on weight, change my looks, attend intensive workshops and make own character sketches as per the role.

Ishaan-Mazumder-interview

The film has received adulations at film festivals. Is that creating pressure on you, now that the film will be screened at halls in Kolkata?

Ishaan Mazumder- Well, all I have got till now has been given by the almighty! I have limitations; everyone has them and I am not an exception! However, since it’s my debut film, I have to improve a lot and will do so because acting is my passion and mistakes are required to improve.  Now therein is the pressure.

What is your expectation from the film?

Ishaan Mazumder- The film should do well. It’s a well-made film.

How are you selecting the roles at the moment? What are the criteria that you are keeping in mind?

Ishaan Mazumder- This is just the beginning and there is no set of criteria that I am following right now. I am here to stay! I will grab any role if the script interests me.

Do you have any dream role?

Ishaan mazumder- I want to share the screen with Mr Bachchan one day. That would be my dream come true.

Ishaan-Mazumder-interview

Who are the directors you would like to work with?

Ishaan Mazumder- We have a huge bunch of multi-talented, versatile directors in our industry. Picking one of them would be very difficult. Even the debut directors are doing great! So, I think right now, it should be the other way around.  I will let them choose me!

What are the next projects lined up for you?

Ishaan Mazumder- I have two other films waiting for their release. ‘Pratyavartan’ directed by Nimu Bhaumik and ‘Untitled Project’ directed by Late. Bappada (Bappaditya Bandopadhyay). I am working on my next assignment now and the details will be shared soon. Stay tuned!

We hope that the hard work of Ishaan Mazumder gets the due appreciation from the critics and the audiences alike. Best of luck!!

 

Interviewer:

Priyanka

Priyanka Dutta takes a keen interest in lifestyle and entertainment related news. She also enjoys interviewing celebrities and other renowned personalities. Priyanka holds a post graduate degree in English and Mass Communication. Journalism is her passion and she has reported for many a reputed international web portals.

 

 

Connect with us on Facebook at: https://www.facebook.com/sholoanabangaliana?ref=hl

Our You Tube Channel: https://www.youtube.com/channel/UC2nKhJo7Qd_riZIKxRO_RoA

Our Twitter Handle: @Sholoana1

Google+ ID: +Sholoana

Audio Music Album of Bengali Film Achena Bondhutto Launched; A film on the LGBT Rights and Issues

Ochena-Bondhutto-Music-Launch

Issues like LGBT have been causing much uproar among the people. With the passing of the 377 rule, people under the LGBT community have been given the status of the third gender. The problems that the people in this community face even after the passing of the rule are what form the crux of the film. The music launch of this upcoming Bengali film took place at One Way restaurant in the presence of the musicians and the star cast of the film.


Film on the LGBT Rights Activists: Achena Bondhutto

“The music in this film is very important. It helps in carrying forward the message of the film that the director wanted to convey to the audience. Apart from me, Saki, Neel, Santanu and Emon Banerjee composed the music of this film. We also have a theme song for this film in which nearly members from all the Bengali bands have performed. Composing music for this film was a great experience and I thoroughly enjoyed it” said singer Sidhu.

Bengali-Audio-Music-Album

The lyrics for the songs have been written by Sidhu, Saki, Santanu and Nitish Ray. Singers like Pota, Rupam Islam, Anupam Roy, Gabu, Anindya Bose, Sidhu, Upal, Surojeet, Chandrani, Taniya, Samiran, Saki and Emon Chatterjee have lent their voices to the songs in this film.

The story of this film Achena Bondhutto speaks of the duality in the minds of those individuals who are themselves involved with the movement of the LGBT community. Niladri’s wife Priyanka works with a NGO that works with LGBT people. However her husband’s deep friendship with Emon makes her suspicious and she leaves her husband imagining her husband to be bisexual. What happens next? This is what the story will reveal to the audience.

Achena-Bondhutto-Audio-Music-Album

Speaking on the occasion director Hrishikesh Mondal said “After completing my graduation in 2007, I worked in a television channel. I also made many short films and documentaries. Then I got to work under Bappaditya Bandopadhyay. The idea for this film came in the year 2010 and it is after much hardship that I have been able to come up with the film”.

Priyam, Ushoshie, Sidhu, Ena Saha, Tista Das, Emon Chatterjee, Sanghamitra Banerjee, Sujoy Bhaumik, Atanu Sarkar, Devika Mukherjee, Bhaskar Halder will be seen in pivotal roles in the film. The film has been produced by Prasanta Debnath.

Achena Bondhutto is slated for release soon.

Priyanka Dutta

Watch Interesting Videos from Tollywood and Bollywood with us at: https://www.youtube.com/channel/UC2nKhJo7Qd_riZIKxRO_RoA
Our Twitter Handle is: @Sholoana1

Janla Diye Bou Palalo Shooting Floor Action, An Aniket Chattopadhaya Signature Comedy Film

 

 

গত সপ্তাহের মাঝামাঝি এক কাঠফাটা রোদ্দুরের দুপুরে আমরা পৌঁছে গেছিলাম পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায়ের নতুন বাংলা ছবি ‘জানালা দিয়ে বউ পালালো’ শুটিং ফ্লোরে। টলিগঞ্জের কাছাকাছি সুর্যনগর এলাকায় অবস্থিত ‘টলি-হোমে’ তখন জোরকদমে শুটিং চলছে। শুটিং ফ্লোরে তখন যে ‘চাঁদের হাট’ একথা বলাই বাহুল্য। কে নেই সেই চাঁদের হাটে? খরাজ মুখোপাধ্যায়, কাঞ্চন মল্লিক, বিশ্বনাথ বসু, বিশ্বজিত চক্রবর্তী, শঙ্কর চক্রবর্তী, দেবরঞ্জন নাগ প্রমুখ। শুধি পাঠকমণ্ডলী, আপনারা আশা করি ছবির শিরোনাম তথা অভিনয় বিভাগের স্বনামধন্য কলাকুশলীদের নামের তালিকা পড়েই বুঝে ফেলেছেন যে ‘জানালা দিয়ে বউ পালালো’ একটি ‘হাস্যরসাত্মক’ বাংলা সিনেমা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায়-এর দ্বিতীয় ছবির হাত ধরেই বহুবছর পরে শহুরে বাংলা ছবির চিত্রনাট্য তথা সংলাপে নির্ভেজাল হাস্যরসের প্রত্যাবর্তন ঘটেছিল। ছবির নাম ছিল ‘ বাই বাই ব্যাংকক’। ৯৩ লক্ষ টাকা খরচা করে বানানো ছবি ‘বাই বাই ব্যাংকক’ বক্স অফিসে ৮ সপ্তাহ রাজত্ব করে তুলে ফেলে প্রায় ১ কোটি ৪৩ লক্ষ টাকা এবং বুঝিয়ে দিয়েছিল যে মধ্যবিত্ত বাঙালি দর্শক এখনো টিকিট কেটে হলে গিয়ে প্রান খুলে হাসতে ভালোবাসে। তারপরে মুক্তি পেল ‘গোঁড়ায় গণ্ডগোল’। এই হাসির ছবিকেও বাঙালি দর্শক সাদরে গ্রহন করলেন এবং বাংলা বাণিজ্যিক ছবির বাজারে অনিকেত চট্টোপাধ্যায়ের জয়যাত্রা অব্যাহত রইল। এরপরেই ঘটলো সেই ছন্দপতন। ইংরাজীতে যাকে বলা যায় ‘লও অফ আভারেজ’ … অনিকেত চট্টোপাধ্যায়-এর চতুর্থ ছবি ‘মহাপুরুষ ও কাপুরুষ’ এক সমকালীন তথা সাহসী ছবি হয়েও বক্স অফিসে হোঁচট খেয়ে মুখ থুবড়ে পড়লো।

Picture 295

যাই হোক ফিরে আসা যাক ‘জানালা দিয়ে বউ পালালো’-র কথায়। এই ছবির রোম্যান্টিক নায়ক হচ্ছেন অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তীর কনিষ্ঠ সন্তান ‘অর্জুন চক্রবর্তী’, যিনি ইতিমধ্যেই ছোট পর্দায় ‘গানের ওপারে’ এবং বড় পর্দায় ‘যদি লভ দিলে না প্রানে’ ছবিতে অভিনয় করে যথেষ্ট পরিমানে দর্শকদের পশ্রয় এবং ভালোবাসা কুড়িয়েছেন। দুষ্টু-মিষ্টি নায়িকা রূপে বড় পর্দায় আসতে চলেছেন নবাগতা অমৃতা, যিনি টেলিভিশনের পর্দায় ‘কনকাঞ্জলি’ মতন সিরিয়ালে ‘নায়িকার’ ভূমিকায় অভিনয় করে ফেলেছেন। আরেকজন নবাগত অভিনেতা এই ছবির মাধ্যমে বাংলা ছবির জগতে আত্মপ্রকাশ করছেন, তার নাম সৌরভ সাহা। এই ছবিতে অভিনয় করার সুযোগ পাওয়ার আগে সৌরভ ‘পঞ্চম বৈদিক’ নাট্যগোষ্ঠীতে প্রায় দুবছর অভিনয় করেছেন এবং করে ফেলেছেন ১২ টিরও বেশি শর্ট ফিল্ম। এই ছবিতে সৌরভের হবু বউ অমৃতা বিয়ের পিঁড়ি থেকে থেকে পালিয়ে যাবেন। তবে বউ জানালা ভেঙে পালিয়ে কতদূর যেতে পারবেন, তা জানতে হলে আমাদের আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। শুটিং ফ্লোরে ধুতি-পাঞ্জাবি পরিহিত সৌরভকে দেখতে বেশ লাগছিলো। টেলিভিশনের জনপ্রিয় কমেডি শো ‘মিরাক্কেল’ খ্যাত অতনু বর্মণ এই ছবিতে এক কানে-কালা পুরোহিতের ভূমিকায় অভিনয় করছেন। জানালা দিয়ে বউ পালালো ছবিতে মিরাক্কেল থেকে আরও দেখতে পাওয়া যাবে সৌরভ পালধী এবং ফটিক পুরকায়স্থ-কেও। কাঞ্চন মল্লিক এক দোর্দণ্ডপ্রতাপ পুলিশ ইন্সপেক্টর-এর চরিত্রে অভিনয় করছেন, যার চুলের এবং কথা বলার স্টাইল রজনীকান্তের মতন। অমৃতার বাবার ভূমিকায় দেখা যাবে বিশ্বজিৎ চক্রবর্তীকে এবং দেবরঞ্জন নাগ একজন ভণ্ড জ্যোতিষীর চরিত্রে রূপদান করছেন।

এই ছবিতে দুজন বিশিষ্ট তথা কৃতি পরিচালক-ও ক্যামেরার সামনে নিজেদের অভিনয় প্রতিভা মেলে ধরতে চলেছেন অনিকেতের পরিচালনায়। তারা হলেন অনিন্দ্য ঘোষ এবং তথাগত বন্দ্যোপাধ্যায়। অনিন্দ্য ঘোষের পরিচালনায় ‘ভাড়াটে’ মুক্তি পেতে চলেছে এই মাসের শেষের দিকেই। তথাগত বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই পরিচালনা করে ফেলেছেন ৬০ টিরও বেশি টেলিফিল্ম এবং ‘দিবা-রাত্রির স্বপ্ন’ কিম্বা ‘কুহেলির’ মতন থ্রিলার ধর্মী সিরিয়াল। এছাড়াও বড় পর্দায় তথাগত অভিনয় করেছেন নীল মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘ঘেঁটে ঘ’ ছবিতে। ‘জানালা দিয়ে বউ পালালো’ ছবিতে অনিন্দ্য ঘোষ সেজেছেন পুলিশ এবং তথাগত সেজেছেন একজন মাতাল মুর্গী চোর। অনিকেতের অন্যতম প্রিয় অভিনেতা খরাজ মুখোপাধ্যায় এই ছবিতে পুলিশের ডি আই জি-র ভূমিকায় অভিনয় করছেন। সেই চরিত্রের নাম জানতে চান? হ্যাঁ … ডি আই জি অফ কলকাতা পুলিশ “খরাজ মুখোপাধ্যায়’।

না না এর বেশী আর কিছু জানতে চাইবেন না আপনারা কারন ভালো খাবার একসঙ্গে পুরোটা খেয়ে ফেলতে নেই। তাই ক্রমশ প্রকাশ্য-র পন্থা অবলম্বন করে আমাদের এই প্রতিবেদনে আজকের মতন ইতি টানলাম। সবাই ভালো থাকবেন … সুস্থ থাকবেন … প্রান-মন খুলে হাসবেন এবং পারলে শোয়ার ঘরের জানালা টায় হুড়কো টেনে রাখবেন … বউ-দের মাথার কি আর বিশ্বাস আছে ? কখন মাথায় কেমন বুদ্ধি ভর করে এবং …………………।।

Report By Arnab Bhattacharya:

Arnab Bhattacharya

Mr. Arnab Bhattacharya is a multi-talented television artist who brings with him 14 years of industry experience and expertise in the feilds of theater, poetry and acting. Mr. Bhattacharya has acted in popular Bangla serials like Crime Diary (ETV Bangla), Sati (Zee Bangla), Bhasha (Star Jalsha), Ishti Kutum (Star Jalsha) and is currently essaying the role of Chapal Bhairagi in one of ETV Bangla’s most popular serials Hiyar Majhe.

Jatishwar Music Review; A Fan’s Letter to Kabir Suman Congratulating the Effort and Presentation

jatishwar musicমান্যবরেষু

কবীর সুমন মহাশয়,

আশা করি এই মুহুর্তে আপনি নিশ্চয়ই অবগত যে পরিচালক সৃজিত মুখার্জির মন কেমন করা বাংলা ছবি ‘জাতিস্মর’ –এ বুঁদ আম-বাঙ্গালি। কিন্তু বাঙালি তথা আমাদের কাছে আসল জাতিস্মর তো আপনি। অত্যাধুনিক যন্ত্রানুসঙ্গ এবং  অ্যামপ্লিফায়ার-এর গর্জনের চোটে বিলুপ্ত প্রায় পুরাতনী বাংলা তর্জমা গান এবং ফেলে আসা জন্ম-পূর্বক ঊনিশ শতককে সুরের স্মৃতি মেদুরতায় তা সত্যিই কুর্নিশ যোগ্য। ‘জাতিস্মর’ ছবিতে ব্যবহৃত বাংলা গানের বিবর্তনী কোলাজে আট থেকে আশি আজ মন্ত্রমুগ্ধ। প্রায় দেড়শ বছর-এর পুরনো বাংলার কবি গান থেকে কালী কির্ত্তন, পদাবলী কির্তন; পোর্তুগিজ ফোক থেকে লালন গীতি; বাংলা আধুনিক জীবন মুখী থেকে বাংলা ব্যান্ড, বাংলা রক – আবহমান কাল ধরে চর্চিত বঙ্গীয় সুর-সংগীতের যে বিস্তৃত চালচিত্র ফুটে উঠেছে তা কন অংশেই পরিপূর্ণ নয়। তবে ছবির সাঙ্গীতিক জয় যাত্রার মুখ্য ও আংশিক কান্দারী আজ আপনিই।

মোট ২১ টি গান সমৃদ্ধ ‘জাতিস্মর’ নাম্নী ছবির উপশিরোনাম ‘আ মিউজিক্যাল অফ মেমরিজ’। সত্যিই সুর ও স্মৃতির গভীর একাত্মতা, যেখানে প্রতিটা গানই সংযোজন করে আলাদা মাত্রা।

ছবিতে অ্যান্টনি কবিয়ালের গান ছাড়াও ব্যবহৃত হয়েছে হরু ঠাকুর, ভোলা ময়রা, ঠাকুর সিংহ, এবং মহিলা কবিয়াল যজ্ঞেশ্বরীর কবি গান; পল্লী গীতি লালন ফকির, পোর্তুগিজ ফোক;  আধুনিক বাংলা জীবন মুখি গানে রয়েছে আপনার স্বাক্ষর; তাছাড়া সমকালীন ব্যান্ড পর্জায়ে রয়েছে অনুপম রায় এবং বাংলা রক-এ সিধু-সাকি।

 এই ছবির প্রতিটা গান ব্যবহৃত হয়েছে প্র্য়োজনার্থে। অ্যান্টনি ফিরিঙ্গির কণ্ঠে শ্রীকান্ত আচার্জ–র কণ্ঠ মোটের ওপর মানানসই। ‘জয় যোগেন্দ্র জায়া মহামায়া’ গানটির আধ্যাত্মিক সুরের দূর্গা বন্দনার ভঙ্গি, যা মনে পবিত্রতার সঞ্চার করে। সেই সঙ্গেই শ্রীকান্তের কণ্ঠে শ্যামা সঙ্গীত ঘরানায় ‘কী রঙ্গ দেখাবি তুই মা’ একটি সুন্দর কালী কির্তন হয়েছে। সুমন মুখোপাধ্যায়ের কণ্ঠে ‘আগে যদি সখী জানিতেম’ গানটি একটি উৎকৃষ্ট পদাবলী কীর্তনের পরিচয়। এই পর্বেই রাখা যায় কীর্তনীয়া ঢঙ্গে শ্রমণা চক্রবর্তী্র কণ্ঠে যজ্ঞেশ্বরীর ‘হলে যদি হল সখা অধিষ্ঠান’ গানটিকে। এছাড়াও বিশেষ উল্লেখ্য ‘যে শক্তি হইতে উৎপত্তি’, ‘প্রেমে খান্ত হলেম প্রান’, ‘খ্রিষ্টে আর কৃষ্টে’, ‘প্রান তুমি’ এই গান গুলির কথা ও সুর। তাছাড়া আপনার কণ্ঠে ‘বল হে অ্যান্টনি’ তে কীর্ত ন ও আখড়াই- এর মিশেল, মনোময় ভট্টাচার্জের কণ্ঠে ‘এখন বুঝলি তো এই হরু নয় সেই হরি’ গানে কন্সার্ট ভঙ্গী মনে রাখার মত। খরাজ মুখোপাধ্যায়ের কণ্ঠে ‘তুই জাত ফিরিঙ্গী’ গানটিকেও নতুন ভাবে পাওয়া গেল। পল্লীগীতি প র্‍্যায় দিব্যেন্দু মুখোপাধ্যায়ের  পোর্তুগিজ গানটি বেশ সুন্দর, পাশাপাশি কালিকাপ্রসাদ ভট্টাচার্জের গাওয়া লালন ফকির-এর ‘জাত গেল জাত গেল বলে’ গান টিও মাটির টান কে অনুভব করায়। আধুনিক গানে আপনার লেখা তিন মাত্রার মার্চিং টিউনে ‘সহসা এলে কী’ গানটা বেশ শ্রুতি শ্রাব্য। তবে এ তুমি কেমন তুমি গানটিও আপনার কণ্ঠে আগে ব হুবার শুনেছি, তবে রূপঙ্করের সুমধুর কণ্ঠেই গানটা বেশী ভাল লাগল। জীবনমুখী প র্‍্যায় আপনার গাওয়া ‘প্রথম আলোয় ফেরা’ গান টি মধ্যযুগীয় ব্যালাড গানের কথা মনে করায়। সমকালীন ব্যান্ড পর্বে অনুপম রায়ের ‘দ্বিতীয় পুরুষ’ অ্যালবামের ‘ফাঁকা ফ্রেম’, সমকালীন বাংলা রক প র্‍্যায়ে সিধুর ‘সিংহ রাশি রাক্ষস গন’ এবং সাকির ‘বল কোনটা প্রিয়’ সমকালীন যুব সম্প্রদায়ের সঙ্গীত প্রীতির ভাবগতির পরিচয় দেয়।

তবে একটা কথা না বলে পারছি না, আপনার যে গানটিকে ভিত্তি করে এত সুন্দর সিনেমাটির নির্মান সেই ‘জাতিস্মর’ গানটিকে ছবির শেষে ব্যবহার করায় গানটির গুরুত্ব খানিকটা হলেও কমে গেছে সাধারন দর্শকের কাছে।

পরিশেষে বলি, তর্জমা বাণী চয়নে সৃজিত মুখার্জি যতটা সার্থক ততটাই সার্থক তার সঙ্গীত পরিচালক হিসাবে আপনাকে নির্বাচনের ভাবনা। ‘জাতিস্মর’-এর মত নতুন ভাবনার বাংলা ছবি আরও হোক, তার সঙ্গে অমর হোক বাংলা চলচ্চিত্রের ইতিহাসে আপনার অবদান।

শুভেচ্ছান্তে,

প্রীতম পাল

Pritam Pal

Jatishwar Music Review has been written in the form of a letter by Pritam Pal to the music composer of the Film Kabir Suman whose song Jatishwar was also the inspiration behind Director Srijit Mukherji’s epic musical Jatishwar. Pritam who is a journalist by profession also takes keen interest in listening to and analyzing different genres of music and critically reviewing them.

Enhanced by Zemanta

Nayika Sangbad Movie Review; Excellence in storytelling, script content and performance making the movie a ‘Must Watch’

nayika sangbad

Director Bappaditya Bandopadhyay’s “Nayika Sangbad” surpasses Aparna Sen’s “Iti Mrinalini” & Madhur Bhandarkar’s “Heroine” with élan. All the three recently released movies have film industry as their common backdrop and narrate the tragic story about a ‘Heroine” and her struggles with stardom & failed personal life. Though the earlier two releases had better star casts and prestigious banners and were directed by two most celebrated directors, Bappaditya’s “Nayika Sambad” excelled in the departments of storytelling, script content & performance. This new Bengali movie marked the grand comeback of a versatile actress Arunima Ghosh, who was mysteriously missing from Tollywood for the last 4 years at the least. Thanks Bappaditya Bandopadhyay for zeroing down on Arunima Ghosh ahead of Paoli Dam or someone of similar stature.

 

প্রথমেই পরিচালক বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায় /Bappaditya Bandopadhyay কে একটা বড় ধন্যবাদ দিয়ে লেখাটা শুরু করি। ধন্যবাদ দিলাম দুটি কারনে। প্রথমতঃ, কাল, কাঁটাতার, হাউজ ফুল, কাগজের নৌকো-র মতন অন্যঘরানার ছবি করার পরে এই প্রথম সাধারন দর্শকদের জন্যে একটি ছবি বানালেন। দ্বিতীয় কারন হচ্ছে অরুণিমা ঘোষ-এর মতন একজন প্রতিভাময়ী তথা সুন্দরী অভিনেত্রী-কে আবার নায়িকা রূপে দর্শকদের দরবারে এনে হাজির করলেন। ‘নায়িকা সংবাদ’ ছবিটির আগা গোঁড়াই যথেষ্ট উপভোগ্য কারন ছবিটিতে একটি সুস্থ স্বাভাবিক বাণিজ্যিক ছবির সমস্ত মশলা ঠিক ঠিক পরিমানে মেশানো হয়েছে, তেমন বাড়াবাড়ি কোথাও করা হয়েছে বলে আমার অন্তত চোখে পড়েনি। যদিও ছবির চিত্রনাট্য তথা কাহিনীর প্রবাহ এবং ধারা নিয়ে কিছু সমলোচনার জায়গা থেকেই গেছে, তাও আমার মুক্তকণ্ঠে স্বীকার করে নিতে দ্বিধা নেই যে বাপ্পাদিত্য-র এই ছবি, সাম্প্রতিক কালে মুক্তিপ্রাপ্ত অপর্ণা সেন / Aparna Sen-এর “ইতি মৃণালিনী” (বাংলা) এবং মধুর ভনডরকর /Madhur Bhandarker-এর “হিরোইন /Heroine”, দুটি ছবিকেই টেক্কা দিয়ে বিজয়ী হয়েছে। এই দুটি ছবির উল্লেখ করলাম কারন এই দুই ছবির বিষয় ছিল নায়িকা কেন্দ্রিক এবং কাহিনী গড়ে উঠেছিলো ছায়াছবির রূপোলী জগতকে সামনে রেখে। শুধু বাপ্পাদিত্য নয়, নায়িকা অরুনিমা ঘোষ -ও কঙ্কনা সেন শর্মা (Konkona Sen Sharma) এবং করিনা কপুর (Kareena Kapoor) বলিউডের দুই প্রথিতযশা তারকা নায়িকাকেই অভিনয়ের খেলায় অবলীলায় হারিয়ে দিয়ে, বড় পর্দায় নিজের অনন্য দক্ষতার সাক্ষর রেখেছেন। তাই আমার কাছে ‘নায়িকা সংবাদ’-এর তাৎপর্য সুদুরপ্রসারী। আশা রাখলাম এরপর বাপ্পাদিত্য তার আগামী ছবিগুলি ঠিক এমনভাবেই সাধারন দর্শকদের কথা মাথায় রেখে করবেন।

এবার ‘নায়িকা সংবাদ’-এর গল্পটিকে পাঠক/পাঠিকাদের স্বার্থে একটু জানিয়ে রাখি। বাংলা ছবির নায়িকা দিয়া মুখোপাধ্যায় আকস্মিকভাবে কলকাতা থেকে নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। এই রহস্যময় অন্তর্ধানের তদন্ত করতে শুরু করে বাংলা খবরের কাগজ ‘দৈনিক সুপ্রভাত’-এর সাংবাদিক নিখিলেশ বন্দ্যোপাধ্যায় (সমদর্শী দত্ত)। দিয়া-র সম্বন্ধে খোঁজ করতে, করতে নিখিলেশ পৌঁছে যায় বাংলা ছবির সুপারস্টার বিজিত-এর কাছে। এই নায়ক বিজিত-এর সঙ্গে নায়িকা দিয়া-র কোন এক সময় প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সেই সম্পর্ক যদিও এখন সুদুর অতীত এবং বর্তমানে বিজিত-এর প্রেমিকা হচ্ছে বাংলা ছবির সেক্সি তরুণী নায়িকা ‘অনুরাধা’। দিয়া-র ব্যপারে খবরাখবর সংগ্রহ করতে, করতে নীখিলেশ আরো জানতে পারে যে বিজিত শুধু দিয়া নয়, দিয়ার আগে এবং পরেও,আরো বেশ কয়েকজন সুন্দরী নায়িকার সঙ্গে সম্পর্কস্থাপন করেছে, শুধু নিজের শারীরিক ক্ষুধা চরিতার্থ করতে। খুব বেশিদিন একজন নায়িকাকে বিজিতের ভালো লাগেনা। এই তদন্তের রেশ ধরেই নীখিলেশ ধীরে ধীরে সংগ্রহ করে ফেলে এমন কিছু চমকে দেওয়ার মতন তথ্য, যেগুলি সন্মিলিতভাবে নায়িকা অন্তর্ধান রহস্যের মোড়টাই ঘুরিয়ে দেয়। নিখিলেশ তার কাজের মধ্যমে একে একে জানতে পারে যে দিয়া-র জীবনে শুধু বিজিত নয়, জড়িয়ে ছিল একজন নবাগত নায়ক, এক নামী ব্যবসায়ী তথা প্রযোজক এবং একজন প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতা। দিয়া কি বেঁচে আছে? সে কি আত্মহত্যা করেছে মানসিক অবসাদের কারনে? কোন সত্য ঢাকতে দিয়াকে কি হত্যা করা হয়েছে? নাকি দিয়া স্বেচ্ছায় কোথাও আত্মগোপন করেছে? একজন নামি নায়িকার হঠাৎ হারিয়ে যাওয়ার কি কারন থাকতে পারে? এইসব রহস্যময় প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে মরিয়া হয়ে ওঠে নিখিলেশ। ঠিক এই জায়গাটিতে এসেই মূল কাহিনী খানিক খেই হারিয়ে ফেলে এবং দর্শকদের চোখে ধরা পরে যায়, চিত্রনাট্যের কিছু দুর্বলতা। এর পেছনে দুটি কারন থেকে থাকতে পারে।  (এক): বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায় গল্পের সামাজিক প্রেক্ষাপট-টিকেই বেশি গুরুত্ত্ব দিয়েছেন, রহস্য কাহিনীর মতন করে ভাবতে চাননি তিনি। (দ্বিতীয়): বাপ্পাদিত্য রহস্য কাহিনীর চিত্ররূপ দিতে অভ্যস্ত নন তাই অনভ্যস্ত হাতে পারে ‘নায়িকা সংবাদ’-এর রহস্যময়তার রসহানি ঘটেছে। কারন যাই হোক না কেন, ‘নায়িকা সংবাদ’-এর মধ্যে একটি ভালো জাতের রহস্য ছবি হয়ে ওঠার সবরকম উপাদান মজুত ছিল এবং বাঙালি দর্শক হয়তো বা ঋতুপর্ণ ঘোষ / Rituparno Ghosh-এর ‘শুভ মহরতের’ পরে একটি ভালো বাংলা সিনেমা ভিত্তিক রহস্য ছবি পেলেও পেতে পারতো কিন্তু বাপ্পাদিত্য তার ছবিটিকে সমাজভিত্তিক ছবি রূপেই আটকে রাখলেন। এই নিয়ে আমার বেশ কিছুটা আক্ষেপ রয়ে গেলো।

অরুনিমা-র কথা শুরুতেই অনেক বলে ফেলেছি, তাই এবার অন্যদের কথাও একটু বলি। বিজিত-এর ভুমিকায় ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত ,  ‘ C/o Sir’-এর পরে আরো একবার নেগেটিভ চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় করেছেন। বিজিত একাধারে দারুণ স্মার্ট এবং মেয়েদের কাছে অত্যন্ত মোহময় ব্যক্তিত্বের অধিকারী। বিজিত চরিত্রের দুই গুরুত্বপূর্ণ দিকই ইন্দ্রনীলের অভিনয়ে ভীষণভাবে ফুটে ঊঠেছে। Indraneil Sengupta / ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত-এর চেহারাও তাকে বিজিত হয়ে উঠতে সাহায্য করেছে। একটি ছোট্ট কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে এমন অভিনয় করেছেন লকেট চট্টোপাধ্যায় /Locket Chatterjee, যে তার এই সংবেদনশীল অভিনয় দর্শকদের মনে দাগ কেটে যাবেই, এই কথা আমি বিশ্বাসের সঙ্গে বলতে পারি। আরেকজনের কথা উল্লেখ না করলে, তার কাজের প্রতি অন্যায় করা হবে, তিনি হচ্ছেন থিয়েটর জগতের বর্ষীয়ান অভিনেতা গৌরীশঙ্কর পাণ্ডা। এক নামি যাত্রাদলের অধিকারীর ভূমিকায় গৌরীবাবু দুর্দান্ত কাজ করেছেন। অনুরাধা-র চরিত্রে মুমতাজ সরকার/Mumtaz Sorcar-কে একটু বেমানান লেগেছে কারন তার চেহারা এবং ব্যক্তিত্ব ‘অনুরাধা’-র মতন স্বার্থপর তথা সেক্সি চরিত্রের সঙ্গে খাপ খায়নি। অনুরাধা চরিত্রে তনুশ্রী চক্রবর্তী /Tanushree Chakraborty কাজ করলে আমার মনে হয় ‘অনুরাধা’-র প্রানসঞ্চার ঘটতো। নিখিলেশ বন্দ্যোপাধ্যায়-এর ভূমিকায় সমদর্শী দত্ত  (Samadarshi Dutta) নিজের মতন করে চরিত্রটি কে বুঝে নিয়ে অভিনয় করেছেন এবং তার কাজ দেখে একবারও মনে হয়নি যে তিনি অভিনয় করছেন, এতোটাই সাবলীল সমদর্শীর অভিনয়। সংবেদনশীল দর্শক কখন যে নিখিলেশের সঙ্গে একাত্মবোধ করতে শুরু করবেন, সেটা তারা নিজেরাও বুঝে উঠতে পারবেন না। সমদর্শী নিঃসন্দেহে এই মুহূর্তে টালিগঞ্জের সবথেকে প্রতিভাময় নবীন নায়ক। পরিচালকদের উচিৎ সমদর্শী কে সঠিকভাবে ব্যবহার করা কারন তার মতন সংবেদনশীল ব্যক্তিত্ব এবং গভীর চোখ আর কোন নবীন নায়কের মধ্যেই নেই।

নায়িকা সংবাদ-এ মোট ৩-টি গান ব্যবহৃত হয়েছে। প্রত্যেকটি গান-ই মনে থেকে যাবে, ছবি শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও। বিশেষ করে, গৌরব চট্টোপাধ্যায় (Gaurab Chatterjee) -এর সুরে, অভিজিৎ বসু /Abhijit Basu-র কথায় অনুপম রায় /Anupam Roy-এর গাওয়া গানটি। চিত্রগ্রাহক রানা দাশগুপ্ত /Rana Dasgupta ছবির ক্লাইম্যাক্স-এর দিকে এসে কিছু কিছু ফ্রেমে অসাধারন এবং ছবির শুরুর দিকের কিছু জায়গায় বেশ সাধারন। চিত্রনাট্য নিয়ে কিছু কথা আগেই বলেছি। এবার আসছি সংলাপ-এর কথায় … এই ছবির সংলাপ শুনে আমার মনে হয়েছে যে চরিত্ররা সবাই সংলাপ মুখস্ত করে, গুছিয়ে ডায়লগ বলেছে। এই পদ্ধতির সমলোচনা করছি না কিন্তু সংলাপের ক্ষেত্রে স্বতঃস্ফূর্ততা-টা অনেক বেশি কার্যকরী বলে আমার মনে হয়। তাই ছবির সংলাপ-কে যতটা মানুষের দৈনন্দিন জীবনের কাছাকাছি রাখা যায়, ততটাই ভালো। বেশি গোছাতে গেলে হিতে বিপরীত হয়ে যায়। ছবির সম্পাদনা বেশ ভালো। ‘নায়িকা সংবাদ’-এর গল্প অনুযায়ী ছবিতে অবাধ যৌন দৃশ্য রাখার সুযোগ ছিল কিন্তু তাও নিজের ছবিতে বাপ্পাদিত্য বন্দ্যোপাধ্যায় যৌনতার ক্ষেত্রে যেমন সংযম দেখিয়েছেন, তাকে ব্যতিক্রমী তথা ‘ভালো’ বলতে আমার কোন দ্বিধা নেই। অরুনিমার কথা বলে আমার review শেষ করি! অরুনিমা আপনি মন দিয়ে আরো অনেক কাজ করুন। ছবির জগত থেকে ‘দিয়া’-র মতন নিরুদ্দেশ হয়ে যাবেন না কারন টালিগঞ্জের আপনার মতন অভিনেত্রীকে বিশেষ প্রয়োজন। বাপ্পাদাকে আবার ধন্যবাদ জানাচ্ছি, অরুনিমাকে আমাদের মধ্যে ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্যে। ‘নায়িকা সংবাদ’-এর ‘দিয়া’ হারিয়ে গেছিলো কিন্তু ‘নায়িকা সংবাদ’ ছবির হাত ধরে রাজকীয় প্রত্যাবর্তন ঘটলো আরেক নায়িকা, যার নাম “অরুনিমা ঘোষ” / ARUNIMA GHOSH


NAYIKA SANGBAD 2013 OFFICIAL TRAILER (You Tube)

 

SanjibSanjib Banerji takes a keen interest in both Old and Contemporary/modern Bengali literature and cinema and have written several short stories for Bengali Little magazines. He also runs a little magazine in Bangla, named – Haat Nispish, which has completed its 6th consecutive year in the last Kolkata International Book Fair. Being the eldest grandson of Late Sukumar Bandopadhaya, who was the owner of HNC Productions and an eminent film producer cum distributor of his time (made platinum blockbusters with Uttam Kumar, like “Prithibi Aamarey Chaaye”, “Indrani” and several others), Sanjib always nurtured an inherent aspiration of making it big and worthy in the reel arena. He has already written few screenplays for ETV BANGLA.
Sanjib can be reached at sanjib@sholoanabangaliana.com

 

 

Enhanced by ZemantaMovie Review By: