Tag: batman-comics

BATMAN : THE LONG HALLOWEEN – A Review

Batman-review

গথাম শহরের অপরাধের দুনিয়ায় রাজত্ব করছে এক হাড় হিম করা আতঙ্ক, যার নাম ‘হলিডে কিলার’। হ্যালোউইন উৎসবের

সন্ধিক্ষণে, শহরের অন্যতম অপরাধগুরু কারমাইন ‘দি রোমান’ ফ্যালকনের ভাইপো জনি ভিট্টির শরীর এফোঁড় ওফোঁড় করে দিলো একটি বুলেট। কায়মনোবাক্যে ফ্যালকন সাম্রাজ্যের পতন চেয়ে আসা ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি হার্ভে ডেন্ট, নিজের মতো করে তদন্ত শুরু করলেন। আর তারপরেই আততায়ীর রেখে যাওয়া বোমার বিস্ফোরণে উড়ে গেলো তাঁর আবাসস্থল। এরপর থ্যাঙ্কসগিভিং, ক্রিসমাস, নিউ ইয়ার, প্রতিটি ছুটির দিনে তার রক্তাক্ত স্বাক্ষর রেখে গেল এই সার্থকনামা খুনী। শুধু ফ্যালকনের পরিবার নয়, হলিডে কিলারের অভ্রান্ত নিশানা থেকে রেহাই পেলো না বিরুদ্ধপক্ষের ক্রাইমবস্‌ সল মারোনির দলের লোকেরাও। শহরজুড়ে যখন এই টালমাটাল অবস্থা তখন উদ্‌ভ্রান্ত হয়ে সমাধানের সূত্র খুঁজে চলেছে ব্রুস ওয়েন ওরফে ব্যাটম্যান। পুলিশ কমিশনার জিম গর্ডন, রহস্যময়ী ক্যাটওম্যান সময়বিশেষে বাড়িয়ে দিচ্ছে সাহায্যের হাত, তবুহলিডে কিলার রয়ে যাচ্ছে সেই ধরাছোঁয়ার বাইরে। দেখতে দেখতে বছর ঘুরে চলে এলো আরেক হ্যালোউইন। এবার কে হবে হলিডের শিকার…… নাকি ব্যাটম্যানের ক্ষুরধার বুদ্ধির ফাঁদে পড়ে শিকারী নিজেই পরিণত হবে শিকারে ?

প্রশ্নের উত্তর রয়েছে যে বইটিতে, তার নাম ‘ব্যাটম্যান: দ্য লং হ্যালোউইন’। ১৯৯৬ থেকে ১৯৯৭, এই একবছরে মোট ১৩টি

সংখ্যায় এই কমিক্স সিরিজ বেরিয়েছিলো ডি. সি. কমিক্সের প্রকাশনায়। জেফ লোয়েবের জমজমাট গল্প আর টিম সেলের আঁকা দুর্দ্ধর্ষ ছবি এই বইয়ের অন্যতম সম্পদ। একটি থ্রিলার কাহিনীর পরতে পরতে জড়িয়ে থাকা রহস্যের ভাঁজকে জেফ লোয়েব তাঁর নিয়ন্ত্রিত লেখনীর মাধ্যমে সযত্নে উন্মোচন করেছেন। আর এই টানটান গল্পের সুযোগ্য সঙ্গত করে গেছে টিম সেলের আঁকা প্যানেলগুলি। দেহরূপকে ঠিক কতটা ভাঙ্গচুর করলে তা বিকৃত দেখায় না বরং আখ্যানের অন্তর্লীন অ্যাকশন্‌কে পাতায় পাতায় জীবন্ত করে তোলে, ‘ব্যাটম্যান: দ্য লং হ্যালোউইন’ গ্রাফিক নভেলটিতে তারই আদর্শ রচনা করেছেন শিল্পী টিম সেল।

তাহলে ‘ব্যাটম্যান: দ্য লং হ্যালোউইন’ কোন পরিচয়ে পরিচিত হবে ? কমিক্স না গ্রাফিক নভেল ? মতামত দেওয়ার আগে অন্য আরেকটি কথা বলি বরং। ভারতে তথা এই বাঙলায় বর্তমানে গ্রাফিক নভেল তৈরি করে ফেলার একটা প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কিন্তু যে দেশের পাঠক কমিক্স বলতে মজারু কিছু চরিত্র অথবা বিদ্‌ঘুটে সুপারহিরোর গল্প বা গদ্যসাহিত্যের কমিক্সায়ন নয়তো বিদেশী কমিক্সের বাংলা অনুবাদ বোঝে, সেই দেশে, সেই পাঠকসমাজে, গ্রাফিক নভেলের বোধ কি করে আসা সম্ভব ? দীর্ঘ আলোচনার অবসর কালান্তরে রইল, আপাততঃ এইটুকু বুঝে নিতে হবে যে, বিদেশে গ্রাফিক নভেলের বাজার তখনই তৈরি হয়েছে, যখন একটি দীর্ঘ কাহিনীকে খন্ডে খন্ডে ভেঙ্গে বলা হয়েছিলো, যেমন ‘মাউস’ বা ‘ওয়াচমেন’। আমাদের দেশের ভাষায় এই বিস্তৃত গল্প বলার ধারাটি অন্ততঃ কমিক্সের ক্ষেত্রে অনুপস্থিত।তাই মনে হয়, এই দেশে কমিক্স নামক সাহিত্য মাধ্যমটি আগে নিজের পায়ের তলায় জমি খুঁজে নিক, বুঝে নিক যে সব গ্রাফিক নভেলই আদতে কমিক্স কিন্তু কমিক্স মানেই সেটা গ্রাফিক নভেল নয়। আর হ্যাঁ, ‘ব্যাটম্যান: দ্য লং হ্যালোউইন’ এমন একটি কমিক্স সিরিজ, অখন্ডভাবে পড়তে গেলে যাকে নির্দ্ধিধায় গ্রাফিক নভেলের তক্‌মা দেওয়া যেতে পারে। কাহিনীর বিস্তার থেকে চরিত্রের বিবর্তন, অর্থাৎ একটি নভেলের যা যা অন্যতম বৈশিষ্ট্য, তার উপস্থিতি এই বইটিতে পাঠকের চোখ এড়িয়ে যাওয়ার কথা নয়।

Review By:

Indranil-Kanjilal

 

Professionally a high school teacher, Dr.Indranil Kanjilal has a passion for comics. Not only reading, he loves to explore this medium of visual storytelling by going through the history of comics’ universe. He also has a knack for writing short features. Being a post graduate student of Bengali literature he has completed his Ph.D. on eminent Bengali author Shirshendu Mukhopadhay.